আরমানউজ্জামানের উপন্যাস “অন্ধের রাজপথ”একুশে বইমেলায়

0
603
ADD

উপন্যাস অন্ধের রাজপথ। পাওয়া যাবে  একুশে বইমেলা-২০২০,
স্টল নং-৪০৫-৪০৬
কুঁড়েঘর প্রকাশনী লিমিটেড।

আসাদকে আবারও থানায় ডেকেছে তদন্তকারী কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম। সে চুপ করে বসে আছে তার সামনে।
– ‘রফিক শেখ তো হাজতে। খুন কে করলো আসাদ সাহেব?’
– বলতে পারছি না স্যার। হয়তো ভিকটিমের কোনো রিলেটিভ।
– ‘কেনো এমন ভাবছেন?’
স্যার খুন তো কোনো স্বেচ্ছাসেবী কাজ নয় যে কেউ মনের সুখে এই কাজ করবে! যে দেশে একজন বিপদে পড়লে অন্যরা সাহায্য না করে মোবাইলে ভিডিও করে সে দেশে একজন আরেকজনের জন্য খুন করবে এটা ভাবা যায় না।
– আপনারা তো স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছেন তাই না!
– হ্যাঁ, তবে সেটা কোনো খুন নয়। আমরা একটা সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে চেয়েছিলাম।
– খুনকে সামাজিক আন্দোলন বলছেন!
– নিশ্চয়ই না। কিছু কুচক্রী মহল আমাদের কাজকে প্রশ্নের সম্মুখীন করতে খুনের মতো জঘণ্য কাজ করছে। তাছাড়া আজ বিচারহীনতা-ই তো মানুষকে প্রতিশোধপরায়ণ করে দিচ্ছে। কয়টা ধর্ষণের বিচার হচ্ছে বলতে পারবেন স্যার!
– আপনাকে বক্তৃতা দিতে ডাকি নি।
– স্যার আমি বক্তৃতা দিচ্ছি না। সত্য বলেছি। ভালো কাজ করে আমাকে সকাল সন্ধ্যা কেনো থানায় হাজিরা দিতে হবে! অপরাধীদের তো থানায় আনতে পারেন না!
– আপনি যে অপরাধী নন, তার প্রমাণ কী!
– স্যার যেহেতু সন্দেহের তালিকায় রেখেছেন, কাজ, গতিবিধি নিশ্চয়ই আপনাদের নজরে আছে।
– মাজহারুল ইসলাম মুচকি হেসে বললেন, তাহলে সেকারণেই খুনগুলো বুঝি বেশ সতর্কভাবে হচ্ছে!

আসাদ চুপ করে রইল, মাজহারুল ইসলামকে সে কিভাবে বুঝাবে যে খুন সে বা তার সাথের কেউ করে নি…

অংশবিশেষঃ উপন্যাস

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধ“অথচ”- মোর্শেদ লিখনের কবিতা
পরবর্তী নিবন্ধকংকন অনিন্দিতা সেন’র কাব্যগ্রন্থ “নির্ঘুম রাত্রিবাস” এবারের কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলায়

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে