আসুক মধুর কোলাহল-পলি শাহীনার কবিতা

0
509
Poly Shahina

আসুক মধুর কোলাহল-পলি শাহীনা

আমার বুকের গহীনে নির্জনতার একটি নদী আছে,
আমার জন্ম, বেড়ে উঠা সেই শান্ত নদীর ঢেউয়ে।
নির্জনতার টান আজন্মকাল পুষেছি বুকের গহীনে,
শুরু থেকে আমার পৃথিবী সেখানেই থমকে আছে।
কোলাহলে হাসফাঁস লাগতো বলে জনারণ্য ছেড়ে,
আমরা চলে যেতাম বুনোফুলের কাছে, অরণ্যে।

নির্জনতার কোলে আমাদের আনন্দের ডিঙি নৌকা ভাসতো,
আমাদের মায়াবী মুহূর্ত ছুঁয়ে নিঝুম সন্ধ্যা নামতো,
আমাদের সুখের রেলিঙে গুচ্ছ গুচ্ছ ফুল ফুটতো।
পাখীরা সন্ধ্যা জলসায় স্বর্গীয় খুনসুটিতে মেতে উঠতো,
জোনাকিরা আমাদের জড়ানো আঙুল ছুঁয়ে ছুঁয়ে জ্বলতো,
উষ্ণ কফির ধোঁয়া সোহাগ জড়িয়ে নিঃসীমতায় হারাতো।

তীব্র কোলাহল ছাপিয়ে প্রাণভরে শ্বাস নিতাম,
ফুল,পাখী, প্রকৃতির সঙ্গে আড্ডায় বসতাম,
আরাধ্য নির্জনতায় প্রশান্তিতে মিশে থাকতাম।
নীলাকাশের নিচে আড্ডা, গল্প, কবিতা, গানে,
জীবনের যত কষ্ট, হতাশা, বিষণ্ণতা ভুলে,
থৈ থৈ মিষ্টি সুখ জমাতাম মনের গহনে।

আজ পৃথিবীতে অন্ধকারাচ্ছন্ন দুর্দিন নেমে এসেছে,
নির্জন চারপাশ; এই নির্জনতা খুব পীড়াদায়ক লাগে।
এই প্রথম ফুল,পাখী, প্রকৃতি অসহনীয় ঠেকছে,
মানুষের জন্য আত্মা পুড়ছে, খুব কান্না পাচ্ছে।
নির্জনতা ভালো লাগছেনা বুকে শূন্যতা জমছে,
মানুষের বৃত্তে হুটোপুটি খেতে মন ছটফট করছে।

এই অতিমারী সঙ্গরোধের বৈরি দিনগুলো পেরিয়ে,
ভয়ংকর নিস্তব্ধতা, নিদ্রাহীন রাতের মিছিল শেষে,
অগণিত মানুষের ভাঙা বুক,অশ্রু সাগর সাঁতরে,
যদি বেঁচে যাই কোনরকম অলৌকিক ভাবে,
প্রিয়তম জেনো; তোমার ঘ্রাণ নেব সবার আগে।
আর বলবো; আমাকে নিয়ে চলো মানুষের উঠোনে,
আমি পরমানন্দে হারাবো মানুষের মধুর কোলাহলে।

~ পলি শাহীনা ।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধনাটোরের বনপাড়া পৌরসভায় শিশুখাদ্য বিতরণ
পরবর্তী নিবন্ধনাটোরে বিকাশ গুজব, বিকাশ একাউন্ট খুলতে দোকানে দোকানে ভীড়

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে