“একটু বলবেন স্যার”- শীলা ঘটকের কবিতা

0
633
শিলা এনকে

“একটু বলবেন স্যার”- শীলা ঘটক

স্যার একটু ভাবুন
ভাবা প্র্যাকটিস করুন,
আপনি নাগরিকপঞ্জীতে আমার
বাবা-মা’র জন্মের তারিখ এবং জন্মস্থান জানতে চেয়েছেন।
বেশ বেশ খুব ভালো খুব ভালো!
স্যার আমি একজন যৌনকর্মীর সন্তান
জন্ম আমার সোনাগাছিতে
কোন এক বাবুর ভালোবাসায় জন্ম হয়েছিল আমার,
জন্মের পর সেই বাবু, আমার পিতৃ পরিচয় দিতে চায়নি সমাজের ভয়ে! সে সমাজের একজন
তথাকথিত নামজাদা ভদ্দরলোক।
কিছুদিন আগে মা পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছে
এখন আমি একা, একেবারেই একা স্যার
অনেক কষ্টে লেখাপড়াটুকু শিখেছি স্যার,
জন্মস্থান আমার সোনাগাছি
কিন্তু বাবার পরিচয় তো দিতে পারবো না স্যার!
আমি এদেশের নাগরিক তো স্যার!!!

স্যার একটু ভাবুন
ভাবা প্র্যাকটিস করুন
আপনি নাগরিকপঞ্জীতে আমার বাবা -মা’র জন্মের তারিখ এবং জন্মস্থান জানতে চেয়েছেন।
বেশ বেশ খুব ভালো খুব ভালো!!
স্যার, আমি একজন রূপান্তরকামী,
ছোট থেকে একটু মেয়েলী স্বভাবের
তারজন্য পৌরুষশালী বাবার পৌরুষত্বে আঘাত লেগেছিল!
দিনের পর দিন প্যান্টের বেল্ট খুলে অনেক মেরেছেন!
এখনো শরীরের অনেক জায়গায় সেই দাগ লেগে আছে!
চাইলে দেখাতে পারি স্যার,
থাকতে পারিনি বাড়িতে,
মা চোখের জল ফেলতো লুকিয়ে লুকিয়ে।
সহ্য করতে পারিনি মায়ের চোখের জল!!
পিসতুতো দাদাদের একাধিকবার ধর্ষণের শিকার
হতে হতে পালিয়ে এসেছিলাম বাড়ি ছেড়ে।
একদিন রাতের অন্ধকারে,
সে অনেক বছর আগের কথা।
ছিলাম রূপম হয়েছি রূপসা
কোন পরিচয়ই তো দিতে পারবো না স্যার।
আমি এখন হিজড়াদের এক আখড়ায় থাকি।
বেঁচে আছি এইটুকু।
আমি এদেশের নাগরিক তো স্যার!!!

স্যার একটু ভাবুন
ভাবা প্র্যাকটিস করুন
আপনার নাগরিকপঞ্জীতে আমার বাবা-মা’র জন্মের তারিখ এবং জন্মস্থান জানতে চেয়েছেন।
বেশ বেশ খুব ভালো খুব ভালো!
স্যার, জন্ম আমার কোলকাতার এক নামকরা
নার্সিংহোমে।
আমার এখন যারা মা বাবা তারা আমার নিজের
মা বাবা নন।
নিঃসন্তান থাকার যন্ত্রণায় কাতর দুটি মানুষ
কোলে করে নিয়ে এসেছিলেন তাদেরই বাড়িতে,
পরম স্নেহে আদরে বড় করেছেন আমাকে,
অন্ধের যষ্টির মতো আমাকে আগলে নিয়ে
বেঁচে আছেন তারা।
ছোটবেলায় কোনদিনই জানতে পারিনি ওরা আমার নিজের মা বাবা নন।
একদিন মা আমাকে সত্যিটা বলে দিয়ে খুব কেঁদে
বলেছিলেন, আমাদের ছেড়ে যাবিনা তো বাবা!!
নাহ, ছেড়ে যাইনি, যাবার প্রশ্ন ওঠেনা।
আমাকে যে গর্ভেধারণ করেছিলেন —-
তার কথা শুনবেন???
শুনুন তাহলে
অভাবের তাড়নায় গর্ভভাড়া দিয়েছিল সে।
কিছু টাকার বিনিময়ে গর্ভভাড়া দিয়েছিল!
জন্মানোর পর আমার মুখটাও দেখতে চায়নি সে!
আমি আমার মা বাবার পালিত সন্তান।
আপনাদের ভাষায় যাকে দত্তক বলে,
তাদের পরিচয়ে পরিচিত আমি।
আমার মা বাবার নাম জন্মস্থান সব দিতে পারবো।
কিন্তু কোনটাই আসল নয়
চলবে তো স্যার আপনার নাগরিকপঞ্জীর জন্য!!?
আমি এদেশের নাগরিক তো স্যার!!!

শীলা ঘটক
কোচবিহার
২৬শে জানুয়ারি, ২০২০

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধকামাল খাঁ’র কয়েকটি ছড়া
পরবর্তী নিবন্ধ“চিরচেনা “—রিংকু’র কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে