কৃষকের মাঝে নগদ অর্থ সহ নানা কৃষি উপকরণ বিতরণ 

0
180

রাজু আহমেদ : তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সততা, সাহসিকতার কারনে বাংলাদেশ মাত্র ১৩ বছরে উন্নয়নশীল দেশে রুপান্তরিত করেছেন। গ্রাম আজ শহরে পরিনত হয়েছে।

গ্রামে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বিদ্যুৎ, রাস্তাঘাট, ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে গেছে। সরকারের সেবা জনগনের দৌড়গোড়ায় পৌঁছে গেছে। একটা দেশ ও জাতিকে উন্নতি করতে যোগ্য নেতৃত্ব দরকার। জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নত।

৩৭ বছর সিংড়া পিছিয়ে ছিলো। ২০০৮ সালের নির্বাচনে সিংড়ার আপামর জনগন আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে। আমি রাষ্ট্রীয় কাজে ব্যস্ত থাকি, তবুও সময় পেলেই সিংড়ায় ছুটে আসি। আজ সেহেরি খেয়ে না ঘুমিয়ে সিংড়ার জনগণের সেবায় ছুটে এসেছি।

প্রতি সপ্তাহে আমার নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে থেকে কাজ করার চেষ্টা করি। তাদের সুখ দুঃখ বোঝার চেষ্টা করি। যেভাবে আপনাদের পাশে আছি, সেবা করে যাচ্ছি, আমূত্যু যেনো সেবা করে যেতে পারি।

পলক আরো বলেন, সরকার করোনাকালিন সময়ে ও কৃষকের পাশে ছিলো। এজন্য দেশে খাদ্য ঘাতটি ছিলো না। চলনবিলে খাদ্য উদ্বৃত্ত হচ্ছে। মৎস্য উদ্বৃত্ত হচ্ছে। দেশের চাহিদা মেটাচ্ছে। কৃষিতে আধুনিকায়ন করেছে সরকার। কৃষি শ্রমিক ঘাতটির সময় কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে আওয়ামী লীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

দুঃসময় প্রকৃত বন্ধুর পরিচয়। আমরা সিংড়ার সকল দুর্যোগে জনগনের পাশে থেকে কাজ করেছি। সুখ দুঃখ ভাগাভাগি করেছি। ৯১-৯৬ সালে কৃষকদের গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ১৩ বছরে যে উন্নয়ন করেছে তা অভূতপূর্ব। ৩৭ বছরের তুলনায় ১০ গুন বেশি উন্নয়ন সিংড়ায় হয়েছে। ১শ কিঃ মিঃ খাল খনন করে দিয়েছেন। ৩০০ কিঃমিঃ পাকা রাস্তা করে দিয়েছেন। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ এর আলোয় আলোকিত করেছেন।

সিংড়ায় তরুন তরুণীর কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য হাইটেক পার্ক সহ ৪ টি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। যুবকদের জন্য মিনি স্টেডিয়াম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে চলনবিল প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এটি পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে রয়েছে। এর মাধ্যমে চলনবিলে কৃষি ও কৃষকের আমূল পরিবর্তন ঘটবে।

শুক্রবার সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের আয়োজনেকৃষি প্রণোদনা কর্মসূচীর আওতায় নাটোরের সিংড়ায় ৩ হাজার প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনা মূল্যে ৫ কেজি করে আউশ ধানের বীজ, ২০ কেজি করে ডিএসপি সার, ১০ কেজি করে পটাস ও ভুর্তকী মুল্যে-

১৫ টি কম্বাইন্ড হার্ভেস্টার এবং ৪ টি থ্রেসার মেশিন এবং সামাজিক বনায়নের উপকারভোগী ১২৪ জনের মাঝে ৫৭ লক্ষ টাকার চেক বিতরণ করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম সামিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে কৃষকদের মাঝে চাবি হস্তান্তর ও চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ সেলিম রেজা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ ওহিদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস,

ডায়াবেটিস সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, শেরকোল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ লুৎফুল হাবিব রুবেল, ছাতারদিঘী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ বাদশা, সুকাস ইউপি চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন মোফা সহ আরো অনেকে।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধনাটোরে ২০ কেজি গাজা উদ্ধার
পরবর্তী নিবন্ধনাটোরে কম্বাইন্ড হিউম্যান রাইটস ওয়ার্ল্ড কমিটির আত্মপ্রকাশ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে