“গরীবের ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ “- নাসিম উদ্দীন নাসিম

0
1125
কালাম এনকে
গরীবের ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ …
নাসিম উদ্দীন নাসিম-
অধিকাংশ মানুষই তার স্বপ্নের সম্পূর্ণ বাস্তবায়ন দেখে যেতে পারেন না। কিন্তু স্বপ্নবান মানুষগুলো তাদের কর্মযজ্ঞের মাধ্যমেই সীমাবদ্ধ জীবনের পরিসরকেই করে তুলেন স্বার্থক। তারা জানেন লালন সাঁইয়ের অমৃত বাণী,’মানুষ ভজলে,সোনার মানুষ হবি’। মানুষের মাঝেই তারা পরম সুখের সন্ধান খুঁজে বেড়ান। যদিও বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মানুষের মানুষের মাঝেই এই জীবন দর্শন উপেক্ষিত। আমি যাকে উপলক্ষ্য করে এই কথাগুলো লেখছি, তিনি নাটোরের স্বনামধন্য চিকিৎসক গরীবের ডাক্তার ডাঃ আবুল কালাম আজাদ ।। খুশির খবরটা হচ্ছে , নাটোরের জেলা প্রশাসন ২০১৭ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ অফিসার হিসেবে ঘোষণা করেছেন।।। এটা খুবিই আনন্দের ব্যাপার আমরা আনন্দিত।।
নাটোর আধুনিক হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ও আমাদের সবার প্রিয় শ্রদ্ধেয় বড় ভাই ডাক্তার ডাঃ আবুল কালাম আজাদ ভাই ।। নাটোরবাসীর প্রাণপ্রিয় ডাক্তার কালাম ভাইকে শুভেচ্ছা ও প্রাণঢালা অভিনন্দন।। নাটোরের আমজনতার পক্ষ থেকে শুভকামনা। আমরা নাটোরবাসী সুখে অসুখে, বিপদে আপদে যে মানুষ টাকে সব সময় কাছে পাই সে আমাদের প্রিয় কালাম ভাই। গগরীবের ডাক্তার নামে পরিচিত সবার প্রিয় মানুষ কালাম ভাই শুধু ২০১৭ সাল নয় ,প্রতি বছরই তিনি শ্রেষ্ট অফিসার হওয়ার যোগ্যতা রাখেন ।।
সারা গত তিন দশকের প্রতিটি সালেই তিনি যে সেবা জেলাবাসীকে দিয়ে চলেছেন তা সব সময় শ্রেষ্ঠত্বের দাবী রাখে ।।আপন সাবলীল স্বভাবের কারণে অতি অল্পতেই প্রসার পান আপন কর্মদক্ষতার। ধীরে ধীরে চিকিৎসার সুফলভোগীদের আপন প্রচারের কারণে, এলাকা ছাড়িয়েও আশে-পাশের এলাকাগুলোতেও ছড়িয়ে পড়ে আন্তরিক সেবার কথা। রাত-দিন নেই,যেখানেই রোগীর স্বজনের ডাক, সেখানেই স্ব-শরীরে উপস্থিত হোন। কখনও খাওয়ার মাঝপথে, কখনও বা খাবার রেখেই ছুটেছেন রোগী দেখার উদ্দেশ্যে। এমনকি সারাদিনের কর্মব্যস্ততার পর গভীর রাতেও ঘুমিয়ে থাকার অজুহাতে কাউকে ফিরিয়ে দেননি। ছোট শিশুদের বেশী চিকিৎসা বেশী করেন ।
আর টাকার জন্য সাধারণত কেউ বিনা চিকিৎসায় ফিরে যান নি। তাঁর এসকল সাবলীল আচরণের জন্য এলাকাবাসীর কাছে পরিচিত ‘গরীবের ডাক্তার’ হিসেবে। হাসপাতালে যেমন তার চেম্বারে থাকে উপচে পরা ভীড়, ঠিক শহররের পুরাতন জিন্নাহ স্কুল মেড়ে কালাম ভাইয়ের রয়েছে ব্যক্তিগত চেম্বার।। সেখানেই রোগীদের ভীড়।। নিদিষ্ট কোন ফ্রি নেই।। যে যা ফ্রি হিসেবে দেন তাই রেখে দেন।।। কেউ না দিলেই আপত্তি নেই।। নাটোরের দলমত নির্বিশেষে সকল মানুষের কাছে কালাম ভাই বিপদের বন্ধু বলে পরিচিত।। নিরহংকার সদাহাস্যমুখ আমাদের কালাম ভাই জেলার গরীব,দুস্থ, মেহনতি মানুষের শেষ ভরসাস্থল।। মানুষটি মনোযন্ত্রণার আপন তাগিদেই মানুষের সেবা করে যান।।
এখনকার চিকিৎসকরা যখন মানুষের সেবার চেয়ে বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত ।।সাজানো গোছানো এসি রুম, রুমের বাইরে অনবরত চেঁচামেচি করতে থাকা এসিস্ট্যান্ট, অপেক্ষমাণরত রোগীদের তাগাদা, ফিটফাট মেডিকেল রিপ্রেসেন্টিটিভদের আনাগোণা, কেউ রিপোর্ট দেখাতে এসেছে, কেউ ২ মাসের পুরাতন রোগী তাই ২০০ টাকা ভিজিট কম, দেখানো শেষে পাঁচশ হাজার ভিজিট দিয়েও আক্ষেপ ডাক্তার সাহেব কথা শোনেননি গুরুত্ব দিয়ে। ডাক্তারের চেম্বার বলতে চোখের সামনে এই চিরচেনা দৃশ্য ভেসে উঠে। ঠিক তখন তিনি সরকারী হাসপাতালে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন ।। নিজের দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে তিনি যেভাবে কাজ করে চলেছেন।।
তাতে জেলা নয় ,পুরো দেশের মধ্যে শ্রেষ্ট আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে ডাঃ আবুল কালাম আজাদ ভাই কে জাতীয় বা রাষ্টীয় ভাবে সম্মান জানাতো উচিত বলে আমি মনে করি ।।।। যা দেখে বর্তমান প্রজন্মের চিকিৎসকরা দায়িত্ব পালনে উৎসাহিত ভাবে ।। কালাম ভাই তাদের কাছে একজন আর্দশবান চিকিৎসকের আইকোন হিসেবে কাজ করবে ।। এ দেশে গুনির কোন কদর নেই।। কদর থাকলেও তা অতি সামান্য ।।ডাক্তার কালাম ভাই যে শুধু ভালো চিকিৎসক তাই নয়, নিজের রোগীদের কাছে তিনি ‘গরীবের ডাক্তার’ হিসেবেও পরিচিত! মানুষের কান্না দেখতে তার ভালো লাগে না। আর তাই সাধ্যমতো চেষ্টা করেন গরীব-দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। মনটা তার মায়া আর ভালোবাসায় পরিপূর্ন। আর্ত-মানবতার সেবায় নিয়োজিত থেকে জীবনের শেষদিন পর্যন্ত সাধারণ মানুষের কাছে চিকিৎসা সেবাকে পৌঁছে দিয়ে ‘Health for the poor by the poor’ স্লোগানকে যিনি সেবার মূলমন্ত্র হিসাবে প্রতিষ্ঠা করেছেন, নাটোর আধুনিক হাসপাতাল কে গড়েছেন এক অনন্য সেবা প্রতিষ্ঠান।।।
সেখানে রিকশাওয়ালা,শ্রমিক,ব্যবসায়ী,গার্মেন্টস ফেরত কিশোরী, মজুর কিংবা একে বারেই খেটে খাওয়া মানুষের যাওয়ার সুযোগ নেই, সামর্থ্য ও নেই। কিন্তু ঠিক এর উল্টোটিই একজন চিকিৎসক গত ২০ বছর ধরে করে আসছেন। ধনী-গরীব নির্বিশেষে সবার জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা।।মানুষটি মানবসেবাকে জীবনের ব্রত করে নাটোরের গরিব মানুষের সেবায় কাটিয়ে দিচ্ছেন। তিনি সেবা ধর্মের প্রাণ পুরুষ’। এছাড়া সেবাকে মানবতার ধর্ম উল্লেখ করে দেশের চিকিৎসাবিদ্যায় শিক্ষারত শিক্ষার্থীদের মানবসেবার ব্রতী হবার আহ্বান জানান সব সময় জান কালাম ভাই ।। তিনি নাটোরের জীবন্ত কিংবদন্তী ।। শুভকামনা নিরন্তর ।।
Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধঅনিল মারান্ডী ছিলেন মানব মুক্তির সংগ্রামের নেতা
পরবর্তী নিবন্ধ“তারুণ্য” কবি সুপ্তি জামান’এর কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে