গ্রিণভ্যলির পিকনিক বাস কেড়ে নিল শিশুর প্রাণ

0
132
nATORE KANTHO

নাটোর কন্ঠ : নাটোরের লালপুরের বিনোদন কেন্দ্র গ্রিণভ্যালিতে যাওয়া পিকনিক বাস কেড়ে নিয়েছে ৮ বছর বয়সী নিস্পাপ শিশু মীমের জীবন প্রদীপ।

নানা বাড়িতে যাওয়া আনন্দে মায়ের সাথে মটর চালিত ভ্যান গাড়িতে করে মায়ের সাথে যাচ্ছিল মীম। চোখে মুখে হাঁসি আর আনন্দের সীমা ছিলনা তার। কিন্তু হঠাৎ করেই নিমিষেই থেমে যায় সেই আনন্দ।

বিষাদে রুপ নেয় মীমের আনন্দ। গ্রিণভ্যালি নামের বিনোদন কেন্দ্রে আনন্দ করতে যাওয়া সাব্বির এন্টারপ্রাইজ নামের একটি পিকনিক বাস কেড়ে নেয় কাজিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী মীমের জীবন প্রদীপ।

এসময় তহিদুল ইসলাম (৫২) নামে একজন গুরত্বর আহত হন। শুক্রবার লালপুরের ঈশ্বরদী -বাঘা সড়কের উত্তর লালপুর এলাকায় এই মমার্ন্তিক ঘটনাটি ঘটে।

নিহত মীম উপজেলার কাজী পাড়া গ্রামের শহীদুল ইসলামের মেয়ে ও কাজিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় আহত ভ্যান চালক তহিদুল ইসলাম একই গ্রামের মৃত মজির মালিথার ছেলে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অটোভ্যানে করে মিম তার মায়ের সাথে নানার বাড়ীতে বেড়াতে যাচ্ছিলো। পথে ঈশ্বরদী- লালপুর-বাঘা সড়কের উত্তর লালপুর এলাকায় পৌঁছাইলে

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থেকে লালপুরের গ্রিনভ্যালি পার্কে পিকনিকে আসা সাব্বির এন্টারপ্রাইজ নামের (বগুড়া-জ -১১- ০১৫৩) বাস ওই অটোভ্যানকে ধাক্কা দেয়। এতে মিমি ভ্যান থেকে ছিটকে নিচে পড়ে যায়।

এসময় বাস তাকে চাপা দিয়ে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা এসে মিমসহ আহতদের উদ্ধার করে লালপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মিমকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে লালপুর থানার পুলিশ ধাওয়া করে ঘাতক বাস ও চালক কে আটক করে লালপুর থানায় নিয়ে আসে । লালপুর থানার ওসি মনোয়ারুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধসোনার বাংলার ভিত্তি রচনা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু – পলক
পরবর্তী নিবন্ধনাটোর জেলা জাতীয় পার্টির বিশেষ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে