ছয় বছরেও ফলন পাননি কৃষি উদ্যোক্তা

0
58
nATORE KANTHO
Advertisement

নাটোর কন্ঠ : নাটোরের এক কৃষি উদ্যোক্তা সেলিম রেজা রোপণের ৬ বছরেও ফলন না পেয়ে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ায় ক্ষোভে নিজের বাগানের ১০৭টি ভিয়েতনামি খাটো জাতের নারিকেল গাছ কেটে ফেলেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার আহমেদপুর এলাকায় এই গাছ কাটার ঘটনা ঘটে।

সেলিম রেজা অভিযোগ করে বলেন, ‘মুনাফালোভী একটি চক্র ভিয়েতনামি খাটো জাতের নারিকেলের চারা এদেশে আমদানি করে। পরে তারা আকর্ষনীয় ছবি সহ চটকদার বিজ্ঞাপন প্রচারের মাধ্যমে কৃষি উদ্যোক্তাদের আকৃষ্ট করে। এরপর চারা বিক্রি করে তারা মুনাফা লুটে নেয়।

ভিয়েতনামের খাটো জাতের এই নারিকেল গাছে ফলন হয়না। বরং নানা রোগ জীবানু ছড়িয়ে মাটি ও আবহাওয়ার ক্ষতি করে। ২ বছরের মধ্যে ফল ধরার কথা থাকলেও ৬ বছর ধরে গাছগুলো থেকে কোন ফল পাওয়া যায়নি। এবং নারিকেল গাছের জীবানু বাগানের অন্য ফসলের ক্ষতি করছিলো।

nATORE KANTHO

সেলিম রেজা আরও জানান, চটকদার বিজ্ঞাপন আকৃষ্ট হয়ে তিনি প্রতারিত হয়েছেন। তার মত আর কোনও উদ্যোক্তা যেন প্রতারিত না হয় সেজন্য সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান। একই সাথে তিনি উপদেশ দিয়ে বলেন, কোন গাছ এ দেশের আবহাওয়া উপযোগী তা জেনে গাছ লাগাতে হবে।’

এবিষয়ে নাটোর হর্টিকালচার সেন্টারের উপপরিচালক মাহমুদুল ফারুক বলেন , ‘এই গাছ রোপণে যেমন সফলতা আছে , তেমন ক্ষতিও আছে। রোপণের শুরু থেকে পরিচর্যা সহ খাদ্য ঘাটতি হলে এই গাছ থেকে কোন সফলতা পাওয়া যাবেনা।

প্রতিদিন এর পরিচর্যা ও পর্যাপ্ত পরিমান খাবার দিতে হবে রোপণের পর থেকে। এর ব্যত্যয় হলে সুফল পাওয়া যাবেনা। এমন কিছু একটা ঘাটতির কারনে এমনটা হয়ে থাকতে পারে। সেলিম রেজা নাটোরের সফল কৃষি উদ্যোক্তাদের মধ্যে একজন। তার বাগানে এমনটি হবে ভাবা যায়নি।’

hasi khushi

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধভুয়া ডাক্তারের ৬ মাসের কারাদন্ড
পরবর্তী নিবন্ধবারামখানা -কবি আজাদুর রহমান‘এর কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে