নাটোরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা শুরু

0
109
natorekantho

নাটোর কন্ঠ : দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত নাটোর জেলার মেধাবী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মিলনমেলা শুরু হয়েছে।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় লালপুর উপজেলার নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলস্ হাইস্কুল মাঠে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস এমপি।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন নাটোর-১ আসনের (লালপুর ও বাগাতিপাড়া) সংসদ সদস্য মোঃ শহিদুল ইসলাম বকুল। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শিক্ষা ও সহযোগিতার মাধ্যমে সারাদেশের উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের

শিক্ষার্থীদের বিনি সূঁতোর মালায় গাঁথা প্লাটফর্ম ‘পুসান’ মেধাবীদের সংগঠিত করে বর্তমানে ২৫ জন শিক্ষার্থীকে মাসিক দুই হাজার টাকা হারে মেধা বৃত্তি প্রদান এবং সৃজনশীল কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে দীর্ঘ সাত বছর ধরে।

শিক্ষার্থীরা পড়াশুনার পাশাপাশি সূক্ষè চিন্তাধারা, সমস্যা সমাধানের সক্ষমতা এবং সৃজনশীলতার গুণাবলী অর্জনের মাধ্যমে দেশের কান্ডারী হিসেবে গড়ে উঠবে। অনুষ্ঠানে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদান এবং নতুন ভর্ত্তিকৃত শিক্ষার্থীদের বরণ করে নেওয়া হয়।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১৮ হাজার শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘পাবলিক ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট’স অ্যাসোসিয়েশন অব নাটোর (পুসান) এর সভাপতি জাহিদ হাসানের সভাপতিত্বে মিলনমেলার উদ্বোধন করেন পুসানের প্রধান সমন্বয়ক তানভীর আনোয়ার।

অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ উপাচার্য ড. মোঃ সুলতান-উল-ইসলাম। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাইদুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মাছুদুর রহমান,

লালপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইসাহাক আলী, পুসানের প্রধান উপদেষ্টা আব্দুস সোবহান, কল্লোল ফাউন্ডেশনের সভাপতি এডভোকেট কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, নাটোর প্রেসক্লাবের সভাপতি ফারাজী আহম্মদ রফিক বাবন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে সমাজ সেবায় অবদানের জন্যে মোঃ শহিদুল ইসলাম বকুলকে বীর উত্তম খাদেমুল বাশার এওয়ার্ড এবং শেফালী আক্তারকে পুসান গোল্ডেন এওয়ার্ড, স্বাস্থ্য সেবায় অবদানের জন্যে নাটোর ইয়ুথ ব্লাড ডোনার এসোসিয়েশনকে-

পুসান ডায়মন্ড এওয়ার্ড, শিক্ষায় অবদানের জন্যে সমর চন্দ্র পালকে মহারাণী ভবানী এওয়ার্ড প্রদান করা হয়, চিকিৎসা ও সমাজসেবায় অবদানের জন্যে সাইদুর রহমান এবং সাংবাদিকতায় অবদানের জন্যে ফারাজী আহম্মদ রফিক বাবনকে চলনবিল রত্ন এওয়ার্ড,

কৃষিতে অবদানের জন্যে ড. মোঃ লতিফুল ইসলামকে অধ্যক্ষ এম এ হামিদ এওয়ার্ড প্রদান করা হয়। দিনব্যাপী অনুষ্ঠান শেষে বিকেলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। সকালে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধনাটোরে থাই পেয়ারা চাষ করে ভাগ্য বদল দুই সহোদর ভাইয়ের
পরবর্তী নিবন্ধ“ফসলি জমি নষ্ট হবে দেখে, কাজ বন্ধ রেখেছিলেন পূর্বের জেলা প্রশাসক”

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে