“নিজেকে আর একা লাগে না”- বারুনি বিশ্বাসের কবিতা

0
269
বারুনি

নিজেকে আর একা লাগে না
বারুনি বিশ্বাস

মনখারাপ দিয়ে শুরু হয় দিন
তারপর গড়িয়ে চলি
দৃশ্যত: এটাই এখন নিত্যদিনের খবর
নতুন করে আর
কিছুই ঘটেনা হাটে মাঠে ও ঘাটে

ভেঙে গেলে পুরাতন সাঁকো
পারাপারের তখন আর কী থাকে অবশেষ
অন্ধসাঁতার ছাড়া ?

তবু ঢের দিন থাকা হলো পাশাপাশি
একসাথে বাঁচা হলো বেশ
কপট সৌরভে আঁকা যে জীবন
কেবলই অন্ধ তামসখেলা অবিরাম খেলে
বেলাশেষ না হতেই খেলা হলো শেষ

তবু যদি ফিরে আসে ভোর
বাদামি বালিকার উচ্ছল হাসির মতোন
যদি আসে সবুজবাতাস খোলা জানালায়
শ্বাস নিতে আমিও হবো না পরাঙ্নুখ
বাঁচবো তুমুল

এইসব গভীর রাতে
যখন আর কেউ জেগে নেই পাশে
বারান্দায় দাঁড়ালেই দেখি
মৃত তারাটির পাশে জ্বলে উঠছে
দ্যুতিময় আরেকটি তারা

সুতরাং
নিজেকে আর একা লাগে না।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধ“রূপকথার একশো বছর”- কবি মলয় রায়চৌধুরী’র কবিতা
পরবর্তী নিবন্ধ“শুভ জন্মদিন, প্রিয় গল্পকার জাকির তালুকদার”-মাসউদ আহমাদ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে