মাদক ছেড়ে বই ধরি // আবু জাফর সিদ্দিকী

0
699
জাফর

মাদক ছেড়ে বই ধরি // আবু জাফর সিদ্দিকী:

মাদক নেশা, মাদক অপরাধ। বর্তমান সমাজে মাদকের জন্য সব ধরনের অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। মাদকদ্রব্য বলতে বোঝানো হয় যে, এমন দ্রব্য, যা খেলে নেশা হয়। এগুলো হলো গাঁজা, ফেন্সিডিল, চরস, ভাঙ, গুল, জর্দা, হেরোইন, মদ, ইয়াবা ইত্যাদি। যখন কেউ এসব দ্রব্যাদির উপর নেশাগ্রস্থ হয়, তখনই তাকে মাদকাসক্ত বলা হয়। মাদকদ্রব্য শারীরিক, মানসিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষতি করে থাকে। মাদকের জন্য মা-বাবাকে খুন, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই সব কিছুই হচ্ছে এ মাদকের জন্য। দেশে প্রতিদিন গ্রেফতার, জেল-জরিমানা, ক্রসফায়ার হচ্ছে তবুও কমছে না মাদকের আগ্রাসন। দেশের সীমান্ত এলাকা দিয়ে প্রতিদিন ঢুকছে এ মাদক। এত কিছুর পরেও যেন কমতি নেই মাদকের।

দেশের যেকোন প্রান্তে হাত বাড়ালেই মিলছে বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য। খুব সহজেই যুবসমাজের হাতে পৌঁছে যাচ্ছে মাদকদ্রব্য। যা দেশের ভবিষ্যতের জন্য অশনিসংকেত। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি দেশের সকল শ্রেণীর নাগরিকের উচিত যার যার অবস্থান থেকে এটা প্রতিহত করা। তা না হলে একসময় এ দেশ মাদকের রাজ্য হয়ে যাবে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে প্রস্তুত তথ্য সংরক্ষণ ইউনিটের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, “২০১৮ সালে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মোট ৪৬৬ জন নিহত হন। মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিস কেন্দ্র (আসক) বলছে, নিহতদের মধ্যে ৪ মে থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাদক বিরোধী অভিযানে নিহত হয়েছেন ২৯২ জন।

আসকের তথ্য অনুসারে, ২০১৭ সালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছিলেন মোট ১৬২ জন। তবে মাদকের পরিবর্তে বই পারে যুবসমাজকে রক্ষা করতে। বই মানুষের সবচেয়ে কাছের বন্ধু। একাডেমিক বইয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন গল্প, কবিতা, প্রবন্ধের বই পড়তে হবে যুবসমাজকে। কবিতা, গল্প লেখতে হবে। কবিতা পাঠের আসর দিতে হবে। মাদক ছেড়ে বই প্রেমিক হতে হবে। বর্তমান সমাজকে মাদকের আগ্রাসন থেকে বাঁচাতে বইয়ের প্রতি আসক্ত হতে হবে। অবসর সময় বাজে আড্ডায় না থেকে সাহিত্য চর্চা করতে হবে। মনযোগী হতে হবে সাহিত্যের প্রতি।

স্কুল-কলেজ, মাদ্রাসায় সাহিত্য আসর করতে হবে। শিক্ষার্থীদের উৎসাহ যোগাতে হবে কবিতা লেখালেখির জন্য। বিভিন্ন সাহিত্য প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে হবে। শিক্ষার্থীসহ সমাজের সকল শ্রেণীর মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। সবাইকে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করতে হবে এ সমাজকে মাদকের আগ্রাসন থেকে বাঁচানোর জন্য। মাদক ব্যবসায়ীদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। আইনের পাশাপাশি সামাজিক অবক্ষয় সম্পর্কে বিভিন্নভাবে তাঁদের মধ্যে প্রচারণা চালাতে হবে। আসুন আমরা মাদক ছেড়ে বই ধরি।

আবু জাফর সিদ্দিকী সংবাদ কর্মী, নাটোর ০১৭৬৪৯৯৩০৯৬

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধএকুশ ভাবনার অমরত্ব/ কাজী আতীকের কবিতা
পরবর্তী নিবন্ধ“আর জানে বুড়ো বটগাছ” কবি শাহিনা খাতুন’এর কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে