লালপুর বাজারে জলাবদ্ধতা নিরসন ও নর্দমা নির্মাণ শুরুর দাবিতে ব্যবসায়ীদের ধর্মঘট

0
569
LaLpur

এম, হোসেন, লালপুর,নাটোরকন্ঠ:

নাটোরের লালপুরে জলাবদ্ধতা নিরসন ও নর্দমা নির্মাণের কাজ শুরু করার দাবিতে বাজার ব্যবসায়ীরা ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে। এ ঘটনায় তাঁরা আজ বুধবার সকাল থেকে দোকানপাট বন্ধ রেখেছে। নর্দমা নির্মাণ শুরু না হওয়া পর্যন্ত এ ধর্মঘট চলিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন তাঁরা। বাজরের কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, প্রায় দুই মাস ধরে বাজার ও এর আশপাশের মহল্লা জলাবদ্ধ হয়ে রয়েছে। এখন টানা বৃষ্টিতে দুর্ভোগ বেড়েছে বহুগুণ । স্থানীয় প্রশাসন পানিনিষ্কাশনের জন্য নর্দমা নির্মাণের কার্যাদেশ দিলেও ঠিকাদার কাজ শুরু করছেন না।

বাজারের তরকারী ব্যবসায়ী আজাহার আলী জানান, সপ্তাহে শনি ও বুধবার এখানে হাট বসে। প্রতিদিনই বসে বাজার। কিন্তু জলাবদ্ধতার কারণে ক্রেতারা বাজারে আসতে চান না। এ কারণে কেনাবেচা নাই বললেই চলে। তাহলে দোকান খুলে লাভ কী?

বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মাহমুদুর রহমান জানান, লালপুর বাজার ও এর আশেপাশের অন্যতম প্রধান সমস্যা হচ্ছে জলাবদ্ধতা। এই বিষয়টি নিয়ে বার বার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনকে জানানোর পরও আমাদের সমস্যার কোন সমাধান হচ্ছে না। যদিওএ বছরের শুরুর দিকে ৪০ লাখ টাকা বরাদ্দে একটি ড্রেন নির্মান করার কার্যাদেশ হয়েছে তবু ঠিকাদার সেই কাজটি শুরুই করছেন না। সেই সাথে আমাদের ভোগান্তিও শেষ হচ্ছে না। এদিকে গত দুই সপ্তাহ আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নর্দমা নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন। কিন্তু এখনো ঠিকাদার কাজই শুরু করেননি। এ অবস্থায় তাঁরা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে আজ সকাল থেকে ধর্মঘট শুরু করেছেন ব্যাবসায়ীরা। দ্রুত নর্দমা নির্মাণ শুরু না করা হলে তাঁরা ব্যবসা বন্ধ রাখবেন। 

এ বিষয়ে লালপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দীক জানান, দীর্ঘদিন পানি জমে থাকায় বাজরে যাতায়াতের রাস্তা নষ্ট হয়ে গেছে। তাছাড়া পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের দিয়ে বাজারের পানি কমানোর চেষ্টা করছি বলেও জানান তিনি। এসময় তিনি আরো বলেন ইতোমধ্যে ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে ব্যবসা প্রতিষ্ঠন চালু রাখার অনুরোধ করেছেন বলেও জানান তিনি।

স্থানীয়রা জানায়, গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে বাজার ও এর আশপাশের এলাকা পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা বাজারে ঢুকতে পারছেন না। ফুটপাতের পণ্য বিক্রেতারাও বসতে পারছেন না। এক যুগ ধরে তাঁরা এভাবে কষ্ট করছেন। বহু বার জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনকে তাঁরা বিষয়টি জানিয়েছেন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয় না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উম্মুল বানীন দ্যুতি জানান,এলাকাবাসীর দুর্ভোগের বিষয়টি আমার নজরে আছে। ইতিমধ্যে নর্দমা নির্মাণের ঠিকাদার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত কাজ শুরু করার জন্য আমি প্রকৌশলীকে পদক্ষেপ নিতে বলেছি।

উপজেলা প্রকৌশলী মো. জুলফিকার জানান, ঠিকাদারকে কাজ শুরুর তাগাদা দেওয়া হয়েছে। দু-এক দিনের মধ্যে কাজ শুরু না করলে চিঠি দিয়ে কৈফিয়ত চাওয়া হবে।

অপরদিকে ঠিকাদার রোকনুজ্জামান জানান, প্রকৌশল বিভাগ কার্যাদেশ দিতে অনেক দেরি করে ফেলেছে। এ ছাড়া করোনা পরিস্থিতিতে শ্রমিকসংকট ও পাথর পরিবহনে সমস্যা থাকায় কাজ শুরু করা যায়নি। শিগগিরই কাজ শুরু হবে।

এদিকে জলাবদ্ধতা এলাকা পরিদর্শন করেছেন উপজেলা চেয়াম্যান ইসহাক আলী । এসময় তিনি বাজার কমিটির সদস্যদের সাথে কথ বলেন। এছাড়া ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য অনুরোধও জানান তিনি। তার অনুরোধের প্রেক্ষিতে বাজার কমিটি আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন বলেও জানায় ব্যাবসায়ীরা। আগামীকাল বৃহস্পিতিবার সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানায় ব্যাবসায়ীরা।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধকরোনা কালে আইন পাড়ার অর্থনৈতিক ক্ষতি – ভাস্কর বাগচী
পরবর্তী নিবন্ধকি অপেক্ষা করছে আমাদের সামনে..! কামাল খাঁ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে