সামনে শনিবার পঁচিশ এপ্রিল শুরু হতে পারে পবিত্র মাহে রমজান

0
829
রমজার

নাটোর কণ্ঠ : আরবি সওমের বহুবচন হচ্ছে সিয়াম, অভিধানিক অর্থ বিরত থাকা, ইসলামের পরিভাষায়  সুবহে সাদিক থেকে শুরু করে, সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার ও যৌন কর্ম থেকে, বিরত থাকার নাম হল রোজা।  পবিত্র মাহে রমজান ১৪৪১ হিজরী ১৪২৭ বঙ্গাব্দ ২০২০ খ্রিস্টাব্দের ২৫ এপ্রিল শনিবার থেকে  শুরু হতে পারে। চাঁদ দেখার উপর নির্ভর করছে।

২০২০ সালের রমজানের প্রথম রোজা হতে পারে ২৫ এপ্রিল রোজ সনিবার। ২৪ এপ্রিল শুক্রবার রমজানের চাঁদ দেখা গেলে। ইসলামের যাবতীয় বিধান চাঁদ দেখার সঙ্গে সম্পৃক্ত। চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে শরিয়ত নির্দেশিত সাক্ষীর কথা গ্রহণযোগ্য হয়। ফলে মুসলিম বিশ্ব চাঁদ দেখেই পালন করবেন পবিত্র রমজান মাসের রোজা। এটাই ইসলামের নীতি। ইসলামের রীতি অনুযায়ী চাঁদ দেখার ওপর নির্ভরশীল আরবি মাস।

চাঁদ দেখার মাধ্যমেই সারাবিশ্বের মুসলিমরা মাসব্যাপী রোজা পালন করেন। ২৯ শাবান ২৪ এপ্রিল যদি রমজানের চাঁদ দেখা যায় তবে ২৪ তারিখ তারাবিহ পড়ে ভোর রাতে সেহরি খেতে হবে। ২৫ এপ্রিল হবে রমজানের প্রথম রোজা। শাবান ৩০ দিন পূর্ণ হলে, সে হিসেবে রমজানের প্রথম রোজা হবে ২৬ এপ্রিল।

নাটোর জেলার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. আবুল কাশেম নাটোর কণ্ঠকে জানান, আগামী শুক্রবার চব্বিশে এপ্রিল মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব মহোদয়, চাঁদ দেখা কমিটি এবং ২৪ জেলার উপ-পরিচালক‘এর সমন্বয়ে কমিটির মাধ্যমে চাঁদ দেখা গেছে কিনা পর্যালোচনা করা হবে। যদি চাঁদ দেখা যায় তাহলে সরকারি ভাবে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।প্রতিটি জেলায় নির্দেশনা আসবে সরকারিভাবে ঘোষণা করা হবে চাঁদ দেখা গিয়েছে। সেই রাত থেকে তারাবিহ নামাজ শুরু হবে, এবং রোজা শুরু হবে।

প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরেও কি তারাবির নামাজ হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে উপ-পরিচালক জানান সরকারিভাবে নির্দেশনা যেমন আসবে সেভাবেই আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করব, যদি সিদ্ধান্ত আসে জামাতের মাধ্যমে খতম তারাবিহ নামাজ পড়া যাবে না তাহলে, প্রতিটি মসজিদে লিখিতভাবে এবং মুঠোফোনে আমরা মসজিদ কমিটিকে দেওয়া হবে বলে তিনি জানালেন।

রমজান

Advertisement
উৎসMahabub Khandakar
পূর্ববর্তী নিবন্ধহাওড় ও চলনবিলে ধান কাটার জন্য নাটোর থেকে ১৩শ’ শ্রমিক পাঠালো জেলা পুলিশ
পরবর্তী নিবন্ধচলনবিলে কৃষকের জমির ধান কাটলেন জেলা প্রশাসক

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে