“আর্নেস্ট হেমিংওয়ে হোম” -বেনজির শিকদার

0
742
www.natorekantho.com

একটি নামকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন কতশত লোকের আগমন ! হেমিংওয়ে পরিবারের, আত্মহননের ব্যথিত ইতিহাসের বর্ণনা নিজের ফেসবুক ওয়ালে, “আর্নেস্ট হেমিংওয়ে হোম এন্ড মিউজিয়াম ফ্লোরিডা “  শিরোনামে তুলে ধরেছেন নিউইয়র্ক প্রবাসী  সাহিত্যিক “বেনজির শিকদার”। বর্ণনার আদ্যপান্ত ইতিহাস, নাটোর কন্ঠের পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হলো ছবি সহ,লেখকের অনুমতি সাপেক্ষে।

বেনজির শিকদার : আর্নেস্ট হেমিংওয়ে হোম এন্ড মিউজিয়াম ফ্লোরিডা, একটি নামকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন কতশত লোকের আগমন !

www.natorekantho.com

আত্মহননের ব্যথিত বর্ণনায় গাইডের মুখ হতে শুনছিলাম, হেমিংওয়ে পরিবারের পিতা ক্লারেন্স এডমন্ডস হেমিংওয়ে, বোন উরসুলা, ভাই লিচেস্টার এবং আর্নেস্ট হেমিংওয়ে সহ তাঁর নাতনি মারগোক্স এর আত্মহত্যার পারিবারিক ইতিহাস সম্পর্কে l

www.natorekantho.com

অনেকটা আটপৌরে অথচ সুবিন্যস্তভাবে বলে যান, প্রথম বিশ্ব যুদ্ধে রেডক্রসের অ্যাম্বুলেন্স চালক নিযুক্ত হওয়া, যুদ্ধক্ষেত্রে আহত হয়ে চিকিৎসা চলা কালিন সময়ে তাঁর চেয়ে বয়সে ৮ বছরের বড়-— নার্স এগনেস ভন কুরোস্কি কে ভালোবেসে ফেলা এবং দু’জন মিলে বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজ দেশ আমেরিকায় ফেরার পর হঠাৎ-ই ইতালি থেকে এগনসের প্রত্যাখ্যানের চিঠি পাওয়ার প্রসঙ্গ l

www.natorekantho.com

চার স্ত্রী—
এলিজাবেথ হ্যাডলি রিচার্ডসন (১৯২১-২৭)
পলিন ফেইফার (১৯২৭-৪০)
মার্থা গেলহর্ন (১৯৪০-৪৫)
এবং তার মৃত্যু পর্যন্ত মেরি ওয়েলস (১৯৪৫-৬১)

উল্লেখ করেন, ক্লাসিক হিসেবে খ্যাত—
‘এ ফেয়ারওয়েল টু আর্মস’
‘দ্য সান অলসো রাইজেস’
এবং ‘দ্য ওল্ড ম্যান অ্যান্ড দ্য সি’ বইগুলোর কথা l

www.natorekantho.com

দেয়ালে টাঙানো একটি ছবির দিকে তাকিয়ে পড়ে শোনান…
‘Man is not made for defeat… A man can be destroyed but not defeated.’
অর্থাৎ ‘মানুষ পরাজিত হবার জন্য জন্মায়নি…মানুষ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে কিন্তু কখনো পরাজিত হয় না l’ মূলত এটি ছিল এই কথাসাহিত্যিক আর্নেস্ট হেমিংওয়ের বহুল সারা জাগানো উপন্যাস ‘দ্য ওল্ডম্যান এন্ড দ্য সি’র আখ্যান থেকে নেওয়া l

www.natorekantho.com

প্যারিসে বসবাস কালে সাহিত্য চর্চা তথা সাংবাদিকতা পেশায় যোগদান অতঃপর স্পেন এবং কিউবায় অবস্থান সবই যেন গল্পের মতো শোনাচ্ছিল ! ঘুরে ঘুরে দেখতে গিয়ে আশেপাশের অসংখ্য ছোট ছোট একতলা মতো বাড়ির মাঝে মায়ামির কি-ওয়েস্টের এই বাড়িটি যেন ছিল এক নিরালা আনন্দধাম !

www.natorekantho.com

একজন মানুষের জীবন কতটা বিচিত্র হতে পারে !
ইলিনয় এর ওক পার্কে জন্ম l ছোট্ট সে শিশু ! বড় হতে হতে বিস্ময় আর বিস্ময় ! বিংশ শতাব্দীর প্রথম ভাগ হতে আজ অব্দি সর্বব্যাপক ভাবে যে বিস্ময় মেলে চলেছে শাখা প্রশাখার পেলবতা l

আমিত্ব হতে উঠে আসা উপলব্ধি…ভালোলাগার প্রবাহে ডুবে সময়টুকু ছিল একান্তই আমার, নিবিড়তায় নিজস্ব l

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধ“চিঠি”- মনির জামান
পরবর্তী নিবন্ধ“হাইফেন”-সুমনা পাল ভট্টাচার্য’র কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে