সিংড়ায় পুলিশ বন্ধ করতে পারলোনা সাপ্তাহিক বড়গ্রাম হাট

0
744
হাট

সৌরভ সোহরাব,সিংড়া,নাটোরকন্ঠ: 

নাটোরের সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রাম এলাকার সাপ্তাহিক হাট বন্ধ করতে পারেনি পুলিশ। এমন অভিযোগ উঠেছে এলাকার সচেতন মানুষের মুখে মুখে। গতকাল শনিবার ছিল হাটবার। স্থানীয়রা জানায় হাটবার বিকালে লোক সমাগমের খবর পেয়ে একটি পিকআপ ভ্যানে পুলিশের একটি দল হাটে উপস্থিত হন। এসময হাট বন্ধ করে সবাইকে বাড়িতে যেতে অনুরোধ করেন। পুলিশের সাময়ীক উপস্থিতিতে ব্যবসায়ীরা দোকান পাট বন্ধ রাখেন এবং হাটের লোকজনও ফাকা হয়ে যায়।

স্থানীযরা আরও জানায় পুলিশ যাওয়া পরই আবারও জমে উঠে হাট। শুরু হয় বেচা কেনা। নিত্য পণ্য কাঁচা বাজার ছাড়াও বেচা কেনার ধুম পড়ে যায় বিভিন্নপণ্য সামগ্রীর। চায়ের ষ্টল গুলোতে জমে উঠে আডডা আর লোক সমাগমে গল্প। ৬ নং ওর্য়াড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহা আলম বলেন, হাট বন্ধের ব্যাপারে আমরা উপজেলা প্রশাসনকে বার বার অনুরোধ করে আসছি। কিনÍু পুলিশ এসে সেই ভুমিকা নেন নাই এবং হাটে অল্প সময় অবস্থান নিয়েছিলেন। যার কারনে পুলিশ যাওয়া পরই হাট বসেছে। এর পর গত রাতে সিংড়া সার্কেল এসপি কয়েকজন পুলিশ নিয়ে এখানে এসে বাজারের কয়েকটি ষ্টলের চুলা ভেঙে দেয়। কিন্তু আজ সকালেও ষ্টলে ষ্টলে অনেক লোকের সমাগমে ফ্লাক্সে করে চা বিক্রয় হয়েছে।

সোহাগ নামের এক চাকুরীজীবি বলেন,গত বৃহষ্পতিার সিংড়ার হাটে সেনা বাহিনী সিংড়া সহ উপজেলার সকল সাপ্তাহিক হাট বন্ধ ঘোষনা করেছেন এবং নিত্য পণ্যের চাহিদা মেটাতে কাঁচা বাজার ও সবজি ব্যবসায়ীদের গ্রামে বাড়ি বাড়ি ফেরি করে সবজি ও কাঁচা মাল বিক্রয় করার আহবান জানিয়েছেন । ্এর পরও আমাদের এই হাট বন্ধ করা হয়নি। এলাকার মানুষকে সুরক্ষার জন্যই বড়গ্রাম হাট বন্ধ সহ এই বাজরে সকাল ও বিকালে লোকসমাগম ঠেকাতে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর টহল জোড়দার করার দাবি জানাচ্ছি।

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধহারু আর চৈতন্য কাকার করোনা ভাবনা! – ভাস্কর বাগচী
পরবর্তী নিবন্ধনাটোর সদর হাসপাতালে ডাক্টারদের মাঝে পিপিই বিতরণ

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে