“অতঃপর সে” কবি কামরুন্নাহার‘এর কবিতা

0
555
www.natorekantho.com

“অতঃপর সে”

কবি কামরুন্নাহার

তার ভালোবাসা চার দেয়ালের কাব্য।
ঘর সাজানো, সন্তান পালন আর
স্বামীর জন্য নানান রকম রান্না।
বাইরেটা অচেনা।
চিনতেই চায়নি কখনো, বোকা সে।
স্বামীর হাতে অর্পণ করেছে বিশ্বাস আর ভালোবাসা।
স্বামী তার বাইরে যায়, কতকিছু দেখে।
কত স্মার্ট অন্য মেয়েরা।
আর তার বউটা কেমন ম্যাড়মেড়ে।
একেবারে মাড় ছাড়া সুতি শাড়ি।
দূর অসহ্য।
অর্পিত ভালোবাসা ফিরিয়ে দিয়েছে পতিদেব।
একটু ঋনও রাখেনি।ছেড়েছে হাত।
চারদেয়ালের কাব্যে সে কাঁদছে অসহায় ভাবে।
আর কত জল ঝরবে বলো?
তার বাঁচতে হবে।
লড়াই তার নিজের সাথে, জীবনের সাথে।
আজ জয়ী সে।
এখন আর জীবনের প্রয়োজনে
তার কোন পুরুষ লিঙ্গের প্রয়োজন হয় না।
আত্নবিশ্বাসী, দৃঢ়, স্বাধীন,স্বনির্ভর আজ সে।
শুধু মনে মনে ভাবে, ভালোই করেছো।
“যেদিন প্রথম বলেছিলে আমার হাতটা ছেড়ে দেবে
আমি খুব ভয় পেয়ে ছিলেম।
যেদিন সত্যি সত্যি ছেড়ে দিলে,কি অদ্ভুত দেখো
আমি বাঁচতে শিখে গেলেম।
অকারণ অহংকারী পুরুষ লিঙ্গ
আমি কৃতজ্ঞ তোমার কাছে।

১৯/১১/১৯

Advertisement
পূর্ববর্তী নিবন্ধ“প্রস্ত্তুত হও” কবি দেবাশিস সরকার‘ এর কবিতা
পরবর্তী নিবন্ধ“মোনালিসা “পাপ্পু আহাম্মেদের কবিতা

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে